রোহিঙ্গাদের জন্য রাখাইনকে নতুন রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি মাহাথিরের – DesherDinkal

রোহিঙ্গাদের জন্য রাখাইনকে নতুন রাষ্ট্র ঘোষণার দাবি মাহাথিরের

১৯৮২ সালে বৌদ্ধ প্রধান মিয়ানমারে নাগরিকত্ব নিয়ে একটি আইন পাশ হয়৷ আর তাতেই নাগরিকত্ব হারায় মুসলিম প্রধান রোহিঙ্গারা৷ জাতিগত সহিংসতার শিকার হয়ে অনেক রোহিঙ্গা বাস্তুচ্যুত হন৷ রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের শিকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয় মানবিক বাংলাদেশ৷ জনসংখ্যার চাপে থাকা ছোট্ট দেশটিতে প্রায় দশ লাখ রোহিঙ্গা বসবাস করছে৷

রোহিঙ্গাদের হয় নাগরিকত্ব নতুবা রাখাইনে পৃথক রাষ্ট্র গঠনের সুযোগ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তুরস্ক সফররত মাহাথির দেশটির সরকারি বার্তা সংস্থা আনাদোলুকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ দাবি জানিয়েছেন।

মাহাথির বলেন, মালয়েশিয়া যদিও কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চায় না। তবে এ ক্ষেত্রে মিয়ানমারে যেখানে গণহত্যা চালানো হয়েছে, সে ক্ষেত্রে প্রয়োজন হলে তা করা হবে।

তিনি বলেন, ‘একসময় মিয়ানমারে একাধিক রাজ্য ছিল। কিন্তু ব্রিটিশরা মিয়ানমারকে একটি রাজ্য হিসেবে শাসনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এ কারণেই অনেক জাতি বার্মা রাষ্ট্রের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এখন অবশ্যই তাদের (রোহিঙ্গা) হয় নাগরিক হিসেবে বিবেচনা করতে হবে নতুবা তাদের নিজস্ব রাষ্ট্র গঠনের জন্য তাদের অঞ্চল রাখাইন দিয়ে দিতে হবে।’

২০১৭ সালে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর অভিযানের মুখে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা প্রাণে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয়। জাতিসংঘ জানিয়েছে, গণহত্যার উদ্দেশ্য নিয়ে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ব্যাপক হারে হত্যা ও গণধর্ষণ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *